শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
লক্ষ্মীপুরে বসত ঘরে ঢুকে নারীকে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ৭! লক্ষ্মীপুরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গুলি-হামলায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু! লক্ষ্মীপু‌রে সেপ‌টিক ট্যাং‌কে নে‌মে বা‌ড়ির মা‌লিক সহ দুই জন নিহত রায়পুরে সরকারি চাল ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ ইউপি চেয়ারম্যান তাফাজ্জল’র বিরুদ্ধে তৃতীয় বারের মত রায়পুর প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত বকেয়া বেতন ও ঈদ বোনাসের দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বেঙ্গল স্যু ইন্ড্রাষ্টিজ’র শ্রমিকরা রামগতিতে ইউপি চেয়ারম্যানের ষড়যন্ত্রের শিকার কৃষকসহ পাঁচ নিরীহ পরিবার রায়পুরে ভুল চিকিৎসায় পা হারায় মাদ্রাসায় পড়ুয়া শিক্ষার্থী লক্ষ্মীপুর জেলা সংস্কৃতি একাডেমির আলোচনা সভা ও ইফতার অনুষ্ঠান লক্ষ্মীপুরে ভুল চিকিৎসায় পা হারিয়েছে মাদ্রাসা ছাত্র

রায়পুরে ভুল চিকিৎসায় পা হারায় মাদ্রাসায় পড়ুয়া শিক্ষার্থী

দেশ যুগান্তর প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ, ২০২৪
  • ৭৯ বার দেখা হয়েছে

রায়হান হোসেন, রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) : লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের ভূল চিকিৎসায় পা হারিয়েছে আফতাব উদ্দিন (১৭) নামের এক মাদ্রাসা ছাত্র । গত ১৭ ই মার্চ কলাগাছ কাটতে গিয়ে পায়ে দায়ের আঘাত পায় আফতাব। পরে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে নেয়া হয় তাকে। সর্বশেষ ঢাকায় রেফার করা হলে সেখানে চিকিৎসধীন অবস্থায় সোমবার (২৫ মার্চ) তার ডান পা কাটার ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, আফতাব রায়পুর উপজেলার রেয়ার মডেল দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণির মেধাবী ছাত্র।

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) চিকিৎসকের বিচার দাবীতে উপজেলার পাটোয়ারী রাস্তার মাথা এলাকায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছে পা হারানো ছত্রের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রেয়ার মডেল দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক,শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

ভুক্তভোগী আফতাবের মামা ফিরোজ আলম (৪০) বলেন, সামান্য একটু কাটা পা নিয়ে আফতাবকে নেয়া হয় লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে। ভুল চিকিৎসায় সে পা হারিয়েছে। আমরা এর বিচার চাই।

আফতাবের সহপাঠী আবদুস সালাম বলেন, আমার বন্ধু আফতাবকে পঙ্গু করে দেয়া হয়েছে। আমরা জেলা প্রশাসক স্যারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

রেয়ার মডেল দাখিল মাদ্রাসার পরিচালক আবুল কাসেম বলেন, আফতাব আমার পরিচালিত মাদ্রাসার দশম শ্রেণির মেধাবী ছাত্র। সম্প্রতি সে ভুল চিকিৎসার শিকার হয়েছে। আমরা যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট অভিযুক্ত চিকিৎসকের বিচার দাবী করছি।

সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরত একজন জানান, ছেলেটিকে ১৭ ই মার্চ জরুরি বিভাগে আনা হয়। বার বার ড্রেসিং করতে বলেছে চিকিৎসক। ধীরে ধীরে তার অবস্থার অবনতি হলেও পরিবারকে উন্নত চিকিৎসার পরামর্শ দেয়নি জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ছেলের বাবা মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (৪২) মালেশিয়া প্রবাসী। ছেলের ভবিষ্যত চিন্তায় নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন ছেলের মা হোসনেয়ারা বেগম (৩৫)।

হোসনেয়ারা বেগম বলেন, আঁর হুতেরে পঙ্গু করি দিছে। বিচার চাই চিকিৎসকের। আঁর কারো যেন ক্ষতি না হয়।

এ বিষয়ে জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ আহাম্মদ কবির মুঠোফোনে বলেন, এ বিষয়ের আমি অবগত নই। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আমাদের YouTube চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
Don`t copy text!
© All rights reserved © 2021 Desh Jugantor
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102
Don`t copy text!